লাইভে এসে কাঁদলেন ই-ভ্যালির এমডি রাসেল

নিজের প্রতিষ্ঠান নিয়ে ওঠা অভিযোগগুলো মিথ্যা বলে দাবি করেছেন ডিজিটাল বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ই-ভ্যালির ব্যবস্থাপনা প‌রিচালক (এম‌ডি) মো. রা‌সেল। শুক্রবার (২৮ আগস্ট) রাত ১১টায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে লাইভে এসে তিনি এ দাবি করেন। এ সময় আবেগপ্রবণ হয়ে কেঁদে ফেলেন মো. রাসেল। বারবার টিস্যু দিয়ে তাকে চোখ মুছতে দেখা যায়।

লাইভে মো. রাসেল বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো মিথ্যা। আমি জোর গলায় আশ্বস্ত করতে চাই, ব্যাবসায়িক দিক থেকে আমাদের কোনো দুর্বলতা নেই। প্রধানমন্ত্রীসহ বাংলাদেশের সরকারের সবগুলো জায়গায় লিখিত আবেদন দিব, যাতে ব্যবসাটা রানিং রেখে সিদ্ধান্তগুলো নেওয়া হয়।

ই-ভ্যালীতে যাদের বিভিন্ন পণ্যের অর্ডার করা আছে তাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, যাদের অর্ডার আছে তাদের একটা অর্ডারও মিস হবে না। ধীরে-ধীরে আমরা সবগুলোই ক্লিয়ার করব। যদি আপনারা আমাদের পাশে থাকেন এবং ভরসা রাখেন, এই সাময়িক সমস্যা আমরা কাটিয়ে উঠতে পারব।

এর আগে একটি স্ট্যাটাসের মাধ্যমে মো. রা‌সেল জানান, আমরা বিশ্বাস করি, শীঘ্রই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে। তারা যা যাচাই করতে চান, আমরা সহযোগিতা করবো।

গ্রাহকদের উদ্দেশ্যে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা প‌রিচালক বলেন, আমরা আপনাদের নৈতিক সমর্থন আশা করি। আমাদের সাথে থাকুন, আসুন আমরা সমস্যাগুলি কাটিয়ে উঠার চেষ্টা করি।

উল্লেখ্য, ই-ভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাস‌রিন ও ব্যবস্থাপনা প‌রিচালক (এম‌ডি) মো. রা‌সেলের প‌রিচা‌লিত সব ব্যাংক হিসাব স্থগিত ক‌রার নি‌র্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অধীন বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ) থে‌কে সব ব্যাংকে চিঠি দিয়ে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়। চি‌ঠি‌তে তা‌দের নামে থাকা সব হিসাব আগামী ৩০ দিন স্থগিত রাখ‌তে বলা হ‌য়ে‌ছে।