ময়মনসিংহে সাংবাদিকের ওপর হামলা, সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবি

দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন ও বেসরকারি টেলিভিশন নিউজ টোয়েন্টিফোরের ময়মনসিংহ প্রতিনিধি সৈয়দ মাহফুজুর রহমান নোমানকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল প্রাঙ্গনে পেশাগত কাজে বাঁধা প্রদান ও হেনস্থা করার তীব্র নিন্দা জানিয়ে নাজেহালকারি বহিরাগত সন্ত্রাসীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন ময়মনসিংহের ৮টি সাংবাদিক সংগঠন।

ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবে আয়োজিত ময়মনসিংহ সাংবাদিক ইউনিয়ন, ময়মনসিংহ রিপোর্টার্স ইউনিটি, ময়মনসিংহ টেলিভিশন জার্ণালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, ময়মনসিংহ টেলিভিশন রিপোটার্স ইউনিটি, সাংবাদিক বহুমুখি সমবায় সমিতি, নিউজ চ্যালেন জার্ণালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন ও ইয়ুথ জার্ণালিস্ট ফোরাম বাংলাদেশ এর নেতৃবৃন্দের এক যৌথ সভায় এই দাবি জানানো হয়। অপরদিকে এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) বিকালে কোতোয়ালী মডেল থানায় ভুক্তভোগী একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

যৌথ সভায় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, গত সোমবার (৩১ আগস্ট) সকালে বেসরকারি টেলিভিশন ‘নিউজ টোয়েন্টিফোর’ চ্যানেলের পূর্ব নির্ধারিত অ্যাসাইনম্যান্ট অনুযায়ী ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আটতলা ভবনের বহিঃবিভাগের বাইরে পানির ফোয়ারার সামনে থেকে ‘সরাসরি’ সম্প্রচার করার সময় বহিরাগত দুই সন্ত্রাসী আবুল কালাম আজাদ ও আরিফুল ইসলাম সিফাত ঘটনাস্থলে এসে সাংবাদিক সৈয়দ মাহফুজুর রহমান নোমান ও ক্যামেরা পারসন শৈবাল দাসকে হেনস্থা করে। সন্ত্রাসীরা হাসপাতালের আউটসোসিং এর লোক পরিচয় দিয়ে ক্যামেরা কেড়ে নেয়ার চেষ্টা ও ভাঙচুর করে।

হামলাকারিরা সাংবাদিক নোমানকে দেড় ঘণ্টার বেশি আটকে রাখে এবং মারধর করতে উদ্যত হয়। সভায় এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে সন্ত্রাসীমুক্তকরণসহ হামলাকারিদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়।