বিয়ের সঠিক বয়স কখন?

বিবাহ হল একটি সামাজিক বন্ধন বা বৈধ চুক্তি যার মাধ্যমে দু’জন মানুষের মধ্যে দাম্পত্য সম্পর্ক স্থাপিত হয়। বিভিন্ন দেশে সংস্কৃতিভেদে বিবাহের সংজ্ঞার তারতম্য থাকলেও সাধারণ ভাবে বিবাহ এমন একটি প্রতিষ্ঠান যার মাধ্যমে দু’জন মানুষের মধ্যে ঘনিষ্ঠ ও যৌন সম্পর্ক সামাজিক স্বীকৃতি লাভ করে।

বিবাহ হল একটি বৈশ্বিক সার্বজনীন সংস্কৃতি। বিবাহ সাধারণত কোন রাষ্ট্র, কোন সংস্থা, কোন ধর্মীয় কর্তৃপক্ষ, কোন আদিবাসী গোষ্ঠী, কোন স্থানীয় সম্প্রদায় অথবা দলগত ব্যক্তিবর্গের দ্বারা স্বীকৃত হতে পারে। একে প্রায়শই একটি চুক্তি হিসেবে দেখা হয়।

কিন্তু বিয়ের সঠিক বয়স কতো? অনেকেই না জানেন না। বিয়ের সঠিক বয়স যাদের এখনো অজানা তাদের সমস্যার সমাধান মিলবে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে।

যুক্তরাষ্ট্রের ইউটাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক নিকোলাস এইচ. ওলফিংগার এক গবেষণায় জানিয়েছেন, ২৮ থেকে ৩২ বছরের দম্পতিদের বিবাহ বিচ্ছেদের সম্ভাবনা কম থাকে। তাই এই সময়টি বিয়ের জন্য সুবিধাজনক সময়।

গবেষণা অনুযায়ী, ২০ থেকে ৩০ বছর বয়সীদের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদের প্রবণতা কম থাকে। অপরদিকে ৩০ থেকে এবং ৪০ বছরের দম্পদিতের মধ্যে বিচ্ছেদের হার বেশি লক্ষ্য করা যায়। ৩২ উর্ধ্ব দম্পতিদের মধ্যে প্রতি বছর পাঁচ শতাংশ হারে বিবাহ বিচ্ছেদের সংখ্যা বাড়ছে।

দম্পতির মানসিক ও আর্থিক সক্ষমতার দিক দিয়ে গবেষণায় বলা হয়েছে ৩০ বছর বয়সে বিয়ে করা দম্পতিরা মানসিকভাবে পরিপক্ক হয়। এছাড়া তারা আর্থিকভাবেও স্বাবলম্বী হয়।

এ গেল বিবাহ বিচ্ছেদ, মানসিক ও আর্থিক সক্ষমতা সংশ্লিষ্ট কারণে বিয়ের উপযুক্ত সময় নিয়ে কথা। এবার সন্তান জন্মদানের ক্ষমতার দিক থেকে দেখলে নারীদের ক্ষেত্রে বিয়ে ২০ বছর থেকে ৩৫ বছরের করাই নিরাপদ। কেননা এই বয়সসীমা নারীদের জন্য সন্তান জন্ম দেওয়ার সর্বোৎকৃষ্ট সময়।