ধর্ষণ রুখবে স্মার্ট প্যান্টি, খুলতে লাগবে পাসওয়ার্ড!

সাত বছরের শিশুর সঙ্গে যৌন সঙ্গমের ঘটনায় মন ভেঙে দিয়েছিল ১৯ বছরের সিনু কুমারীর। তখন থেকে সে এমন কিছু করতে চেয়েছিলো যা নারীদের সুরক্ষা হবে। আর সেই ভাবনা থেকেই ভারতের বিএসএসির ছাত্রী সিনু তৈরি করে ফেললেন এমন এক প্যান্টি যা আটকাবে ধর্ষণ।

উন্নত ইলেকট্রনিক প্রযুক্তিতে তৈরি এই প্যান্টিতে রয়েছে স্মার্টলক যা খুলবে শুধুমাত্র সঠিক পাসওয়ার্ড দিলেই। পাশাপাশি লোকেশনও জিপিআরএস-এর মাধ্যমে জানতে পারা যাবে, এতোটাই উন্নত প্রযুক্তির ব্যবহার করা হয়েছে এই প্যান্টিতে।

ভারতের উত্তরপ্রদেশের ফাররুখাবাদ জেলার এক অত্যন্ত সাধারণ পরিবারের মেয়ে সিনু জানিয়েছেন, প্রতিদিনের এই ধর্ষণের ঘটনার খবরে তিনি হতাশ হয়ে যেতেন। একদিন সাত বছরের এক শিশুর সঙ্গে ঘটে যাওয়া এমনই এক মর্মান্তিক ঘটনা শুনে তিনি আর স্থির থাকতে পারেননি। সে সময়ই কিছু একটা করার প্রতিজ্ঞা তিনি নিয়েছিলেন মনে মনে। যেমন ভাবনা তেমন কাজ। সিনু তৈরি করে ফেললেন এই ধর্ষণ প্রতিরোধক প্যান্টি।

প্রায় একমাসের পরিশ্রমের পর এটি তৈরি করতে সফল হন তিনি। তবে এই প্যান্টিকে আরও অনেক উন্নত করা সম্ভব। কিন্তিু বিভিন্ন সংস্থার সাহায্যেই তা বাস্তবায়িত হতে পারে।

ব্লেডপ্রুফ কাপড় দিয়ে তৈরি এই প্যান্টিকে কাঁচি বা ব্লেড দিয়ে কাটা যাবে না, এমনকি আগুনও ধরানো যাবে না এতে। প্রায় ৫,০০০টাকা ব্যয় হয়েছে এটি তৈরি করতে। তাই সাধারণ প্যান্টির তুলনায় এর মূল্যও যে বেশি হবে তা স্বীকারও করেছেন সিনু। তবে সরকার যদি সাহায্যের হাত এগিয়ে দেয় তাহলে গরীব মহিলাদের কাছে পৌঁছে যেতে পারে এই সুরক্ষাকবচ।

সিনুর এই প্রচেষ্টায় সাড়া পড়ে গিয়েছে ভারতের সর্বত্র। এমনকি এই খবর পৌঁছে গিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মানেকা গান্ধীর কানেও। তিনিও যথেষ্ট প্রশংসা করেছেন সিনুর এই প্রচেষ্টার।